: প্রস্তাবিত

BDT 62,000

যশোর জেলা

Jamal Ahamad
  • 450 কিলোমিটার

TVS বহু বছর ধরে ভাল মান রাখার জন্য পরিচিত এবং এই গাড়িটিও তার ব্যতিক্রম নয়। Manual ট্রান্সমিশন সিস্টেম, অনন্য ফিচার এবং 450 কিমি মাইলেজে বিশিষ্ট এই গাড়িটির মূল্য মাত্র ৳ 62000, যা কিনা বাজারে সব...

BDT 130,000

ঢাকা

Romel J41
  • 30,000 কিলোমিটার

My Tvs Rtr Apache- 2015 Super Fresh... Reg..No : Dhaka Metro-La-...-**** With Digital Plate... Documents:Smart Card.Tax Token .Insurance. Colour: Black...Milage:40-45Km...Run:30,000Km..... Al...

BDT 75,000

যশোর জেলা

Jamal Ahamad
  • 650 কিলোমিটার

৳ 75000 এ সুলভ মূল্যে পাচ্ছেন TVS Apache RTR tvs 2016 apache my bike for sell indin bike all papers up date ache গাড়িটি । 650 কিমি মাইলেজ এবং Manual ট্রান্সমিশন সিস্টেম সমৃদ্ধ সাশ্রয়ী গাড়িটি আপন...

BDT 75,000

যশোর জেলা

Jamal Ahamad
  • 580 কিলোমিটার

বহু বছর ধরে TVS ভাল মান বজায় রাখার জন্য পরিচিত এবং এই গাড়িটি তারই একটি সেরা উদাহরণ। এই TVS Apache RTR rtr 2016 apache for sell all papers up date ache ibdin bike গাড়িটির আছে Manual ট্রান্সমিশন স...

BDT 165,000

ঢাকা

Badhonahmed786 Badhonahmed786
  • 1,000 কিলোমিটার

Digital number plate. All papers OK.(inc insurance) 1000 km. Name transfer possible at any moment. u will get two set of keys, service book, rain cover. Dhaka metro -LA 32 serial.

BDT 110,000

ঢাকা

  • 18,000 কিলোমিটার

Condition : 1st Hand Driven { allmost new } manufacturer : { Tvs Appache RTR] Series :untouched engine Model : 2015 milis: 18000 k m Serial : Dhaka Metro LA-27 .... Engine : 4 stroke Displacement...

BDT 130,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

ঢাকা

  • 40 কিলোমিটার

TVS Apache RTR red color very good condition fresh look. Digital number plate with 10 years validity smart card Paper. One hand use never work on engine only 30000 km run. Any time ownership tran...

ফলাফল হালনাগাদ করুন
বাংলাদেশে টিভিএস অ্যাপাচি আরটিআর বিক্রয়

বাংলাদেশে টিভিএস অ্যাপাচি আরটিআর বিক্রয়

ভারতের তৃতীয় বৃহত্তম মোটরসাইকেল উৎপাদন টিভিএস তাদের অ্যাপাচি আরটিআর মডেল উৎপাদন করছে ২০০৬ সাল থেকে। বাজারে এই মডেলের প্রবর্তন ভারতের মোটরসাইকেল ইতিহাসে নতুন মাইলফলক নিয়ে আসে। তরুণ প্রজন্ম এই মডেলটা অনেক পছন্দ করে আর ভারতীয় উপমহাদেশের রাস্তায় রাস্তায় ১ মিলিয়নের চেয়েও বেশি অ্যাপাচি চলছে। আর টি আর এর অর্থ “রেসিং থ্রটেল রেসপন্স”। যাতে করে বোঝা যায় এই মডেলটা ডিসাইন করা হয়েছিল রাস্তায় আরও রেসিং পাওয়ার নিয়ে আসার জন্য।

এককালে টিভিএস জাপানী সুজুকি কোম্পানির সাথে মিলিত হয়ে অনেক মোটরসাইকেল উৎপাদন করেছে। অ্যাপাচি এর সূচনা হয় সুজুকি ফিয়েরো থেকে, যেটা টিভিএস নির্মান করেছিল ১৯৯৯ সালে। অ্যাপাচি আরটিআর সিরিজের বর্তমানে ৩টি ভ্যারিয়েন্ট বাজারে উপলব্ধ: অ্যাপাচি আরটিআর ১৬০ হাইপার এজ,  অ্যাপাচি আরটিআর ১৮০ এবং  অ্যাপাচি আরটিআর ১৮০ এবিএস।

২০০৮ সালে অ্যাপাচি আরটিআর এফআই লঞ্চ হয়। পরে ২০০৯ সালে টিভিএস তাদের নতুন ভ্যারিয়েন্ট আরটিআর ১৮০ এর সাথে “হাই পারফরমেন্স” বাজারে নিয়ে আসে। অ্যাপাচি আরটিআর ১৮০ এবিএস এর প্রবর্তন হয় ২০১১ সালে, নতুন প্রযুক্তি আর নতুন ডিসাইন এর সাথে। বাংলাদেশে টিভিএস শুধু তাদের আরটিআর ১৫০ ভ্যারিয়েন্টটাই অফার করে, আমাদের দেশের প্রসঙ্গ মাথায় রেখে।

টিভিএস অ্যাপাচি আরটিআর রিভিউ

টিভিএস অ্যাপাচি আরটিআর স্পেসিফিকেশন

সব অ্যাপাচি ভ্যারিয়েন্ট এর আছে ৪ স্ট্রোক সিঙ্গেল সিলিন্ডার ইঞ্জিন, আর সাথে কিক ইলেকট্রিক স্টার্টের সুবিধা। ১৮০ ভ্যারিয়েন্টগুল্কর সর্বোচ্চ টর্ক ১৫.৫ নিউটন মিটার আর অন্যান্য ভ্যারিয়েন্ট এর ১৩.১ নিউটন মিটার। সবগুলোরই আছে ডুয়াল মোড ডিজিটাল ইগনিশন সিস্টেম। সবগুলো বাইকের সর্বোচ গতি প্রায় একই রকম। ১৮০ সিরিজের সর্বোচ্চ গতি ১২৪ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা আর ১৬০ সিরিজের সর্বোচ্চ গতি ১১৮ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা। অ্যাপাচির ১৮০ সিসি মডেল ০ থেকে ৬০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা গতিতে পৌছাতে পারে ৩.৭ সেকেন্ডে আর ০ থেকে ১০০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা গতিতে পৌছাতে পারে ১২.০৭ সেকন্ডে। মহাসড়কে এটার মাইলেজ ৫৪ কিলোমিটার প্রতি লিটার এবং শহুরে রাস্তায় ৪৮ কিলোমিটার প্রতি লিটার। অ্যাপাচি ভারতের মোটরসাইকেল জগতে পেটাল্‌ ডিস্ক ব্রেক সিস্টেম এর অগ্রদূত।

টিভিএস অ্যাপাচি আরটিআর ডিসাইন

সব অ্যাপাচি সিরিজেরই একটি বিস্ট-ইন্স্পায়ার্ড হেডল্যাম্প আছে যেটা ইগনিশন দিয়ে নিয়ন্ত্রিত। টেইল ল্যাম্পগুলো ডিসাইন করা হয়েছে রেডিকাল রেসের ভিত্তিতে। ড্যাশবোর্ডতার আছে স্কাপ্লটেড লুক আর ডিজিটাল ডিসপ্লে সহ পেশীবহুল স্টাইলিং। আরটিআর ১৮০ এবিএস শুধু সাদা আর কালো রঙে উপলব্ধ। আরটিআর ১৮০ উপলব্ধ সাদা, কালো, আর ধুসর রঙে। শেষ ভ্যারিয়েন্টটির সবচেয়ে বেশি সংখ্যক রঙে উপলব্ধ: হলুদ, লাল, ধুসর, কালো আর লাল রঙে। বাংলাদেশে বাজাররত ১৫০ সিসি মডেলটি পাওয়া যায় লাল, সবুজ, হলুদ, ধুসর আর সাদা রঙে।

টিভিএস অ্যাপাচি আরটিআর ফীচার্স

আপসের নতুন মডেলগুলোর আছে পার্পেচুয়াল মোশন স্টাইলিং এর সাথে পেশীবহুল ইঞ্জিন কাউল। এটার কোনাচে ফুয়েল ট্যাঙ্ক বায়ুরোধ কমে আর ইঞ্জিনের তাপ প্রায় ১০ ডিগ্রী সেলসিয়াস কমিয়ে আনে। সব আরটিআর এরই আছে এলয় চাকা আর টিউববিহীন টায়ার। এটার আছে ডিজিটাল আর এনালগ ড্যাশবোর্ডের সমাহার. ডিজিটাল স্ক্রিনে আছে স্পিডমিটার, অডোমিটার, ২টি ট্রিপ মিটার, হাই স্পিড রেকর্ডার, ০-৬০ টাইমার, ডিজিটাল ফুয়েল মিটার আর ডিজিটাল ঘড়ি।

বাংলাদেশে টিভিএস আরটিআর মূল্য    

অনেক ডিমান্ডের কারণে টিভিএস এর এই মডেলটা বাংলাদেশের সব এলাকায় সহজেই পাওয়া যায়। এছাড়া, এখানে টিভিএস মোটরসাইকেলের ভালো মার্কেট শেয়ার আছে। সারা দেশে অনেক ডিলাররাই একজোট হয়ে কাজ করছে এই মডেলটাকে প্রমোট করবার জন্য। এই মডেলের দাম নির্ভর করবে অবস্থা আর নির্মান সালের ওপর। ব্যবহৃত অ্যাপাচি আপনি পেতে পারেন ১ লক্ষ টাকার মধ্যে, কিন্তু নতুন মডেলের দাম পর্বে প্রায় ২ লক্ষ টাকার বেশি। বাংলাদেশে অ্যাপাচি আরটিআর প্রত্যাশিত মূল্য নিচে দেয়া রইলো:

টিভিএস অ্যাপাচি আরটিআর ২০১৫ মূল্য: নতুন - ২,০০,০০০ থেকে ২,২০,০০০ টাকা

টিভিএস অ্যাপাচি আরটিআর ২০১৪ মূল্য: নতুন – ২,০০,০০০টাকা; ব্যবহৃত - ১,৩০,০০০ থেকে ১,৯০,০০০ টাকা

টিভিএস অ্যাপাচি আরটিআর ২০১৩ মূল্য: নতুন - ১,৭০,০০০ টাকা  

টিভিএস অ্যাপাচি আরটিআর ২০১২ মূল্য: নতুন - ১,২৫,০০০ থেকে ১,৪০,০০০ টাকা

কেন কিনবেন টিভিএস আরটিআর?

এই ব্র্যান্ডটা নির্ভরযোগ্য আর এটার মেইনটেনেন্স খরচ অনেক কম। স্পেয়ার পার্টস আর আফটার সেল্স সার্ভিস সহজেই উপলব্ধ। এটার ফুয়েল এফিসিয়েন্সিও এই ক্যাটাগরির অন্যান্য বাইক, যেমন হিরো হানক, ইয়ামাহা এফজেডএস বা বাজাজ পালসার থেকে ভালো।