: প্রস্তাবিত

BDT 1,650,000

ঢাকা

MD SAYEM
  • 134,000 কিলোমিটার

Toyota Kluger V Model - 2002, Reg - 2006, Golden Base color, Black Wooden panel, DVD Navigation back camera, 2400 cc, AC, CNG 90 liter from southern, all auto, interior outside fresh and no accid...

BDT 2,200,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

ঢাকা

Sayeed Chaudhury
  • 115,000 কিলোমিটার

Well-maintained vehicle. A pleasure to drive. Converted to CNG but mostly driven on petrol/octane. Registered in 2006.

BDT 1,900,000

Dhaka

Vashkar Nazm
  • 60,000 কিলোমিটার

Toyota supplies only the best quality vehicles and this vehicle is yet another example from their impressive fleet. This Toyota Kluger S 2003 S comes with a Automatic transmission system as well ...

BDT 2,600,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

ঢাকা

Mhhimon Mhhimon
  • 78,000 কিলোমিটার

All papers upto date. All manufacturers’ parts and original body color. Fresh interior and condition are very good. Only Serious buyers are encouraged to contact seller for more information. Plea...

BDT 1,890,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

Sylhe Sadar

Car City
  • 95,000 কিলোমিটার

Toyota Kluger V Model- 2002 Registration-2005 Engine: VVT-I Horse Power : 2400cc Transmission (Gear) : Auto Color: Black Fuel System : Patrol & Cng Mileage : 95,000 km Price: 18,90,000/- Options:...

BDT 2,350,000 রোড মূল্য

Bangladesh

Upal Chowdhury
  • 120,000 কিলোমিটার

SUV Kluger V, Premium Graded Fully Loaded Premium Graded Fully Loaded , 3000 CC Condition : Excellent Manufacturer : Toyota, Japan Series : Kluger V Model : 2002 Registration : 2006 Mileage : 1,2...

ফলাফল হালনাগাদ করুন
বাংলাদেশে টয়োটা ক্লুগার বিক্রয়

বাংলাদেশে টয়োটা ক্লুগার বিক্রয়

টয়োটা ক্লুগার একটি মাঝারি আকারের ক্রসওভার এসইউভি যা টয়োটা মটরস কর্পোরেশন ২০০০ সালে বাজারে ছাড়ে। এটি প্রথম গাড়ি-ভিত্তিক মাঝারি আকারের ক্রসওভার যা টয়োটা কাম্রির প্লাটফর্ম ব্যবহার করেটয়োটা ক্লুগার উত্তর আমেরিকা এবং ইউরোপের বাজারে টয়োটা হাইল্যান্ডার নামে পরিচিত। এসইউভি হল একটি স্পোর্টস ইউটিলিটি ভেহিকল একটি স্পোর্টস কার এবং কাঁচা রাস্তার জিপ-ধরণের গাড়িদের মিলন। বিশ্বে টয়োটা ক্লুগার বেশ দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে উঠে এবং ২০০৬ সাল পর্যন্ত এটি টয়োটার সবচেয়ে বেশি বিক্রিত এসইউভি ছিল। এটি তিন প্রজন্ম ধরে উৎপাদন করা হচ্ছে, এবং এর সর্বশেষ প্রজন্মটি ২০১৩ সালে বাজারে আসে। প্রথম প্রজন্মের টয়োটা ক্লুগার পাঁচ-সিট এবং সাত-সিটের মডেলে ছাড়া হয়েছিল। জাপান এবং অস্ট্রেলিয়াতে এটি টয়োটা ক্লুগার নামেই পরিচিত। টয়োটা বাংলাদেশ লিমিটেড বাংলাদেশে টয়োটা ক্লুগার বাজারজাত করেনা। কিন্তু এর বিপুল জনপ্রিয়তার কারনে এটি আমদানি করা হয় প্রাইভেট ডিলার দ্বারা। বাংলাদেশে বিক্রির জন্য টয়োটা ক্লুগারের রি-কন্ডিশন্ড গাড়ি সহজেই পাওয়া যায়।

টয়োটা ক্লুগার রিভিউ

টয়োটা ক্লুগারের পারফরমেন্স এবং ইঞ্জিন বিস্তারিত

২০১৫ সালের টয়োটা ক্লুগার পাওয়া যাচ্ছে পাঁচটি ভিন্ন মডেলে: এলই, এলই প্লাস, এক্সএলই, লিমিটেড এবং হাইব্রিড লিমিটেড। ক্রেতারা ক্লুগারের নানান ড্রাইভট্রেন থেকে বেছে নিতে পারেন।

  • বেস মডেলগুলো চালিত হয় একটি ২.৭ লিটার ভি৪ ইঞ্জিন দ্বারা যা ১৮৫ হর্সপাওয়ার শক্তি উৎপাদন করে এবং জ্বালানী খরচ শহরে ২০ মাইল ও হাইওয়েতে ২৫ মাইল প্রতি গ্যালনে।
  • বেশিরভাগ মডেলগুলো ব্যবহার করে ৩.৫লিটার ভি৬ ইঞ্জিন যার জ্বালানী খরচ শহরে ১৯ মাইল ও হাইওয়েতে ২৫ মাইল প্রতি গ্যালনে।
  • হাইব্রিড ড্রাইভট্রেনটি ব্যবহার করে একই ভি-সিক্স ইঞ্জিন যা একটি ৬৫০ ভোল্টের ম্যাগনেট মোটরের সাথে যুক্ত। এটির মাইলেজ ২৭ কিমি শহরে এবং ২৮ কিমি হাইওয়ে রাস্তাতে।
  • চাকাগুলোতে শক্তি চালিত করা হয় একটি ৬-স্পিড অটোম্যাটিক বৈদ্যুতিক ট্রান্সমিশন দিয়ে (ইএমএটি)
  • টয়োটা ক্লুগারের আছে আল্ট্রা-লো এমিশন ভেহিকল ২ রেটিং

টয়োটা ক্লুগার সর্বাধুনিক প্রযুক্তি যেমন রিয়ার ক্রস-ট্রাফিক এলার্ট সহ ব্লাইন্ড স্পট মনিটর, লেন ডিপারচার এলার্ট এবং টার্ন-বাই-টার্ন নেভিগেশন সিস্টেম ব্যবহার করে।

টয়োটা ক্লুগার ডিজাইন

টয়োটা ক্লুগারের একটি স্টাইলিশ এবং সুঠাম অবয়ব আছে। সর্বশেষ মডেলটি আগেরগুলো থেকে বেশ আলাদা দেখতে কারন এটির একটি উদ্ধত ফ্রন্ট গ্রিল আছে। টয়োটা ক্লুগারের অন্দর বেশ প্রশস্ত এবং বিলাসবহুল। ক্লুগারের আসনব্যবস্থা সাতজন আরোহী পর্যন্ত বহন করতে পারে। প্রতিটি আরোহী তাদের জন্য তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রন করতে পারেন এয়ার ফিল্টারড ৩-জোন ক্লাইমেট কন্ট্রোল সিস্টেমের দুটো আলাদা দ্বিতীয় ও তৃতীয় সারির ভেন্ট ব্যবহার করে। ভেতরে আরো আছে হিটেড ফ্রন্ট সিট, রিয়ার সিট ব্লু-রে এন্টারটেনমেন্ট সিস্টেম, টিল্ট/টেলিস্কোপিং ৩-স্পোক স্টিয়ারিং হুইল এবং ৪.২ ইঞ্চি এলসিডি মাল্টি-ইনফরমেশন সিস্টেম।

টয়োটা ক্লুগারের কিছু অসামান্য বৈশিষ্ট্য

টয়োটা ক্লুগার তার প্রজাতির অন্যান্য গাড়ি থেকে ভিন্ন কারন এটির আছে আল্ট্রা-লো এমিশন, টার্ন-বাই-টার্ন নেভিগেশন সিস্টেম, এনার্জি ডিসিপেটিং ইন্টেরিওর ট্রিম, ডাউনহিল এসিস্ট কন্ট্রোল, ড্রাইভার-এসিস্ট সোনার, ফ্লিপ-আপ রিয়ার হ্যাচ উইন্ডো, এবং ওয়াশার-লিঙ্কড ভ্যারিয়েবল ইন্টারমিটেন্ট উইন্ডশিল্ড ওয়াইপার।

বাংলাদেশে টয়োটা ক্লুগারের দাম

টয়োটা ক্লুগার বাংলাদেশে সহজেই পাওয়া যায়। রি-কন্ডিশন্ডব্যবহৃত অবস্থায় বেশ সহজলভ্য। যদি বেশি টাকা খরচ করতে ইচ্ছে না হয় তাহলে আপনি ব্যবহৃত এবং রি-কন্ডিশন্ড টয়োটা ক্লুগার ২৬ লাখ থেকে ৫৫ লাখ টাকার মধ্যে পাওয়া যায়, দাম নির্ভর করে গাড়ির মডেল, মাইলেজ ইত্যাদির উপর।

টয়োটা ক্লুগার ২০০৫ দাম - ব্যবহৃত – ৩৩.৫লাখ থেকে ৪০লাখ টাকা

টয়োটা ক্লুগার ২০০৪ দাম - ব্যবহৃত – ২৭.৫লাখ টাকা

টয়োটা ক্লুগার ২০০৩ দাম- ব্যবহৃত – ২৬.৫লাখ টাকা

কেন আপনি টয়োটা ক্লুগার কিনবেন?

২০১৫ মডেলের টয়োটা ক্লুগার ইউএস নিউজ র‍্যাঙ্কিং অনুযায়ী এক নম্বর সহজলভ্য মাঝারি আকারের এসইউভি। ক্লুগার কেবল মাত্র তার উৎপাদনকারী কোম্পানির নামের জন্যই বিখ্যাত নয়, এটি তার শক্তিশালি ইঞ্জিন, প্রশস্ত প্যাসেঞ্জার স্পেস ও উচ্চমানের অন্দরসাজ দিয়ে তার প্রতিদ্বন্দ্বীদের সঙ্গে কঠোর প্রতিযোগিতা দেয়। যদিও ক্লুগারের মালবহন ক্ষমতা তার প্রতিদ্বন্দ্বীদের মতন বেশি নয়, কিন্তু এরপরও এটি একটি পারিবারিক গাড়ি হিসেবে বেশ মানানসই। টয়োটা ক্লুগার বাংলাদেশের বাজারে প্রতিযোগিতা করে থাকে তার পরিবারের টয়োটা ফরচুনার, টয়োটা র‍্যাভফোর, টয়োটা প্রাডো, টয়োটা ল্যান্ড ক্রুজার, নিশান পাথফাইন্ডার আর ফোর্ড এক্সপ্লোরারের সঙ্গে। টয়োটা ক্লুগার আপনার জন্য সেরা গাড়ি কারন এটির আছে:

  • শক্তিশালি এবং মজবুত কাঠামো
  • আরামদায়ক এবং সহজ চালনা
  • দরকারি এবং বিলাসবহুল নানান ফিচারের বিপুল সমাহার
  • পারিবারিক এসইউভি হিসেবে খ্যাতি