: প্রস্তাবিত

BDT 1,350,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

ঢাকা

Alamgir Hossain
  • 220,535 কিলোমিটার

TOYOTA BELTA IMPORTED FROM JAPAN, TOYOTA BELTA, G- Edition, MODEL-2012,NEW SHAPE, COLOR - PEARL, CC - 1300. All POWER WITH RETRACTABLE WINKER MIRROR.DIGITAL MILEAGE. AUTO TRANSMISSION, PETROL D...

BDT 1,367,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

ঢাকা

Centro Automobiles
  • 18,000 কিলোমিটার

IMPORTED FROM JAPAN TOYOTA BELTA ,MODEL-2012, NEW SHAPE,1300CC, INTERIOR BEIGE COLOUR,COLOUR- PEARL,HIGH GRADE, FOG LIGHT,POWER STEERING,TV, NAVIGATION,BACK CAMERA,ALL POWER,ALL OPTION, RETRACT M...

BDT 1,367,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

ঢাকা

Centro Automobiles
  • 17,000 কিলোমিটার

IMPORTED FROM JAPAN TOYOTA BELTA ,MODEL-2013, NEW SHAPE,1300CC, INTERIOR BEIGE COLOUR,COLOUR- PEARL,HIGH GRADE, FOG LIGHT,POWER STEERING,TV, NAVIGATION,BACK CAMERA,ALL POWER,ALL OPTION, RETRACT M...

BDT 1,489,999 মূল্য পরিবর্তনশীল

ঢাকা

Pakiza auto
  • 39,000 কিলোমিটার

Pakiza auto one of the most renowned car distributor of Bangladesh. We here to achieve your goal. We always try to fulfill customer requirements. Our conditions are here 1. Loan facilities up to...

BDT 980,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

ঢাকা

Ragibshaherier Ragibshaherier
  • 110,000 কিলোমিটার

octane driven car All auto option.push start mileage might be high but the engine is very fresh because it is octane driven model-2005 registration-2011

ফলাফল হালনাগাদ করুন
বাংলাদেশে টয়োটা বেল্টা বিক্রয়

বাংলাদেশে টয়োটা বেল্টা বিক্রয়

বেল্টা জাপানি গাড়িনির্মাতা টয়োটার উৎপাদিত একটি গাড়ি। এটি নভেম্বর ২০০৫ থেকে উৎপাদিত হয়ে আসছে। ২০০৬ সাল থেকে এটি বিশ্বের প্রায় সব দেশেই পাওয়া যাচ্ছে। যদিও জাপানে এটি টয়োটা বেল্টা নামে পরিচিত, অনেক দেশে এটি টয়োটা ইয়ারিস এবং টয়োটা ভায়োস নামেও পরিচিত।

বেল্টা” শব্দটি এসেছে ইটালিয়ান “বেলা জেন্টে” শব্দ থেকে, যার অর্থ “সুন্দর মানুষ”। এটির মেয়াদ বেশ কয়েক প্রজন্ম ধরে দীর্ঘায়িত করা হয়েছে। এটি এ সাবকম্প্যাক্ট সেডানটি হোন্ডা সিটি, হোন্ডা ফিট এবং ফোর্ড ফিয়েস্তার সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই দিচ্ছে বাজারে।

টয়োটা বেল্টা রিভিউ

টয়োটা বেল্টা ইঞ্জিন বিস্তারিত

টয়োটা বেল্টা আপনাকে আরাম ও স্বাচ্ছন্দ্যর সাথে ফ্রন্ট হুইল ড্রাইভ প্রদান করে। এই সেডানের সম্পূর্ণ ৫-স্পিড অটোম্যাটিক, ৪-স্পিড ম্যানুয়াল এবং নতুন সিভিটি ট্রান্সমিশন সবগুলো মডেলেই পাওয়া যায়। এবং, ইঞ্জিনেরও ভিন্ন ভিন্ন মডেল আছে। ক্রেতা বেছে নিতে পারেন ১.০লিটার ১কেআর-এফই, ১.৩লিটার ২এনজেড-এফই ১৪, ১.৩লিটার ২এসজেড-এফই ইঞ্জিন থেকে। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে, ১০০০-১২০০সিসি ইঞ্জিনগুলো মডেল অনুসারে পাওয়া যায়।

১.০ লিটার ১ কেআর-এফই ১৩ ইঞ্জিনটি অন্যান্যদের চেয়ে আরো বেশি দূরত্ব ভ্রমন করতে পারে প্রতি লিটারে। তাই যারা জ্বালানি সাশ্রয় করতে চান, তাদের জন্য এটি সেরা পছন্দ। বাকি সব ইঞ্জিন কাঁচা রাস্তায় আরো ভাল চলতে পারে।

টয়োটা বেল্টা ডিজাইন ও বৈশিষ্ট্য

টয়োটা বেল্টা গাড়িপ্রেমিকদের মাঝে জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। এটি ছাই, কালো, প্যাস্টেল সবুজ, লাল, এবং নীল রঙে পাওয়া যাচ্ছে। রঙগুলো শাইনি কিংবা ম্যাট ধাঁচের করে নেয়া যায়। এটির অন্দর বেশ আকর্ষণীয়। ২০০২ টয়োটা করোলার চেয়ে বেশি জায়গা আছে এটির ভেতরে।

এই চার-দরজা বিশিষ্ট গাড়িটি আসে পাঁচটি সিট ও নানান সুরক্ষা বৈশিষ্ট্য যেমন ২৫৫০ হুইলবেস সমৃদ্ধ এলয় হুইল, ডুয়াল এয়ারব্যাগ, সবগুলো সিটে হেড রিস্ট্রেন্ট, এন্টি-লক ব্রেকিং সিস্টেম (এবিএস), ফগলাইট, পাওয়ার স্টিয়ারিং, পাওয়ার লক এবং আরো অনেক অত্যাধুনিক সুবিধা নিয়ে।

টয়োটা বেল্টার উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য

২০০৯ সাল থেকে টয়োটা বেল্টার সকল মডেল “স্ট্যাবিলিটি কন্ট্রোল” সিস্টেম সংযোজিত হয়ে আসছে, যা কিনা এর সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য।

বাংলাদেশে টয়োটা বেল্টার প্রাপ্যতা এবং মূল্য

টয়োটা যে বাংলাদেশে সবচেয়ে “জনপ্রিয়” ব্র্যান্ড, তা নিয়ে কোন প্রশ্ন নেই। কিন্তু হুন্ডাই এবং মিটসুবিশিরও বেশ কিছু সাবকম্প্যাক্ট সেডান পাওয়া যায় দেশে। রিকন্ডিশন্ড টয়োটা বেল্টা বাংলাদেশের গাড়ির দোকানে এবং অনলাইনে কিনতে পাওয়া যায়। ৯ থেকে ১১ লাখ টাকাতেই পাওয়া যাচ্ছে এই গাড়িটি। নিচে কারমুডির তালিকায় টয়োটা বেল্টার উৎপাদন সাল অনুযায়ী মূল্য দেয়া আছে।

টয়োটা বেল্টা ২০০৫ দাম: ব্যবহৃত – ৯.২৫ লাখ টাকা

টয়োটা বেল্টা ২০০৬ দাম: ব্যবহিত – ১০.৫ লাখ টাকা

কেন আপনি টয়োটা বেল্টা কিনবেন?

দৈনন্দিন ব্যবহারের জন্য এটি বেশ সুলভ একটি গাড়ি যদি আপনি আপনার গাড়ির স্পেয়ার পার্টস সহজে পেতে চান, তাহলেও এটি আপনার জন্য সেরা, কারন এটির পার্টস বাংলাদেশের যেকোনো খুচরা গাড়ির মার্কেটে পাওয়া যাবে। আপনার টয়োটা বেল্টা কেনা উচিত কারন এটি দিচ্ছে:

  • দারুন জ্বালানীসাশ্রয়
  • লো টার্নিং রেডিয়াস
  • পর্যাপ্ত অন্দর আকার
  • মনোরম বহিরাবরণ