: প্রস্তাবিত
সঠিক ফলাফল পাওয়া প্রস্তাবিত বিকল্প
ফলাফল হালনাগাদ করুন
বাংলাদেশে মাহিন্দ্রা স্করপিও বিক্রয়

বাংলাদেশে মাহিন্দ্রা স্করপিও বিক্রয়

২০০২ সালে লঞ্চ হবার পর মাহিন্দ্রা স্করপিও সাফল্যের শীর্ষ পৌঁছে যায় ভারতে আর অন্যান্য দেশে। আর এখন প্রায় ১৩ বছর পর, এটা এখনো রাস্তা আর বাজারের ওপর রাজ করে চলেছে। এটার শক্তিশালী বলিষ্ঠ আর শক্তসমর্থ, স্করপিও দেখতে একটি শিকারি পশুর মত, যেটা যেকোনো মুহুর্তে শিকারের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়বে। মাহিন্দ্রা স্করপিও উৎপাদন আর বাজারজাত করে মাহিন্দ্রা এন্ড মাহিন্দ্রা লিমিটেড, যেটা ইন্ডিয়ান মাহিন্দ্রা গ্রুপ এর ফ্ল্যাগশিপ কোম্পানি।

এই চার চাকার ড্রাইভ এর এসইউভি এর প্রথম প্রজন্ম বাজারে আসে ২০০২ সালে, আর তার পর এটার ২য় প্রজন্ম দেখা দেয় ২০০৬ সালের এপ্রিল মাসে। আর একদম শেষে মহিন্দ্রা স্করপিওর ৩য় প্রজন্ম লঞ্চ হয় ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর মাসে। ইউরোপে মাহিন্দ্রা গোয়া নামে পরিচিত এই যানটি শুধু মানুষের মনই না, অনেকগুলো সম্মানজনক পুরস্কারও জিতে নিয়েছে, যেমন বিবিসি ওয়ার্ল্ড উইল্স এর “বেস্ট কার অফ দ্য ইয়ার” আর “বেস্ট এসইউভি অফ দ্য ইয়ার” পুরস্কার।

মাহিন্দ্রা স্করপিও রিভিউ

মাহিন্দ্রা স্করপিও স্পেসিফিকেশন আর পারফরমেন্স

মাহিন্দ্রা স্করপিও বিক্রি হয় ১২টি ভিন্ন ভার্সনে, এস২ থেকে শুরু করে এস১০ ৪ডাব্লিউডি এটি পর্যন্ত। মাহিন্দ্রা স্করপিও ২০০৭ যেটা কারমুডির কাছে পাবেন, সেটা একটি ৫ দরজার ৭ সীটার অফ-রোড যান। এটার আছে ৮টি ভাল্ভ সহ ৪ সিলিন্ডার ২৬০৯ সিসি টার্বোচার্জড ডিজেল ইঞ্জিন। এটার এস২ ভার্সন আপনাকে দেয় সর্বোচ্চ ৫৫.৩ কিলোওয়াট ইঞ্জিন শক্তি ৩২০০ আরপিএম এ, আর এটার সর্বোচ্চ টর্ক ২০০ নিউটন মিটার ১৪০০ থেকে ২২০০ আরপিএম এর মধ্যে।

মাহিন্দ্রা স্করপিওর আছে ৫ স্পিড ম্যানুয়াল গিয়ারবক্স আর এটা সর্বোচ্চ ১৬৭ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা গতিতে পৌছাতে পারে। এটার আরাই সার্টিফাইড মাইলেজ ১৫.৩৭ কিমি প্রতি লিটার, আর সত্যিকারের মাইলেজ এই সংখ্যার চেয়ে বেশি দূরে না। শহুরে অবস্থায় আপনি পাবেন প্রায় ১৩ কিমি প্রতি লিটার। তাছাড়া এর আছে ৬০ লিটারের অসাধারণ ফুয়েল ট্যাঙ্ক ধারণ ক্ষমতা

মাহিন্দ্রা স্করপিওর অনেকগুলো চমৎকার সেফটি ফিচারও আছে। গাড়ির ভেতর দেয়া আছে এসআরএস এয়ারব্যাগ চালক আর যাত্রীডের জন্যে, স্পিড এলার্ট সহ এবিএস (এন্টি-লক ব্রেকিং সিস্টেম), ক্র্যাশ প্রটেকশন ক্রাম্পল জোন, স্টিয়ারিং মাউন্টেড কন্ট্রোলস, ইত্যাদি।

মাহিন্দ্রা স্করপিও বাহিরের ডিসাইন

মাহিন্দ্রা স্করপিও এর সবচেয়ে লক্ষনীয় বিষয় হচ্ছে খুঁটিনাটির প্রতি তাদের কড়া নজর। এই ভারী যানটির আয়তন হচ্ছে ৪৪৯৩*১৮১৬*১৯৭৬ মিমি আর এইটার উইলবেস ২৬৮০ মিমি। পেছনের দরজার আছে দুই টোন এর ফিনিশ আর ব্র্যান্ড নিউ এলইডি টেইল লাইট। ১৭ ইঞ্চি চাকা আর অসাধারণ ডি-শেপ নিয়ে এই গাড়িটি সত্যিই অপূর্ব সুন্দর। এই গাড়িটি উপলব্ধ ৫টি ভিন্ন রঙ্গে: ডায়মন্ড ওয়াইট, মিস্ট সিলভার, ফায়ারি ব্ল্যাক, মল্তেন রেড আর রিগাল ব্লু।

মাহিন্দ্রা স্করপিও ভেতরের ডিসাইন

ভেতরের অংশে মাহিন্দ্রা স্করপিও একটি রাজকীয় যান। কেবিন তৈরী করা হয়েছে বিলাসবহুল ম্যাটেরিয়ালস দিয়ে, আর তাস সাথে আছে কম্প্যাক্ট ডুয়াল টোন ড্যাশবোর্ড আর আরও অনেক মজার ফীচার্স। যথেষ্ট লেগরুম আর হেডরুম পাবেন আপনি স্করপিওতে, যেন আপনি এসি কেবিনে আরাম করে বসে স্করপিওর প্রি-ইনস্টলড উঁচু মানের মিউসিক সিস্টেমের গানের আনন্দ নিতে পারেন।

বাংলাদেশে মাহিন্দ্রা স্করপিওর মূল্য

নতুন ব্যবহৃত আর রিকন্ডিশন্ড মাহিন্দ্রা স্করপিও আপনি পেতে পারেন বাংলাদেশের বাজারে। নিচে বাংলাদেশে উপলব্ধ মাহিন্দ্রা স্করপিওর একটি মূল্য তালিকা দেয়া রইলো। এই তালিকাটি কারমুডির বর্তমান লিস্টিং এর ওপর নির্ভর করে তৈরী করা হয়েছে, আর সময়ের সাথে বদলাতে পারে।

মাহিন্দ্রা স্করপিও ২০০৭ মূল্য: ব্যবহৃত- ৯,৫০,০০০ টাকা

এখন আপনি কারমুডি সাহায্যে আপনার শহরে উপলব্ধ মাহিন্দ্রা স্করপিও খুঁজে নিতে পারেন:

 

  • চট্টগ্রামে নতুন, ব্যবহৃত আর রিকন্ডিশন্ড মাহিন্দ্রা স্করপিও বিক্রয়

 

  • সিলেটে নতুন, ব্যবহৃত আর রিকন্ডিশন্ড মাহিন্দ্রা স্করপিও বিক্রয়    

কেন কিনবেন মাহিন্দ্রা স্করপিও?

বাজারে এই গাড়ি যানবহনের জগতের টাইটানদের সাথে, যেমন, রেনল্ট ডাস্টার, টয়োটা ইনোভা, সাফারি স্টর্ম আর ফোর্ড ইকোস্পোর্ট। মাহিন্দ্রা স্করপিও কিনতে পারেন কারণ এর আছে:

  • বলিষ্ঠ ও পেশীবহুল বাহিরের অংশ
  • বিলাসবহুল অন্দর
  • অসাধারণ মাইলেজ আর স্পিড সাশ্রয়ী মূল্যে