: প্রস্তাবিত

BDT 1,350,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

ঢাকা

N B CARS
  • 43,256 কিলোমিটার

Car Name : Kia Sportage Model : 2006 Registration : 2006 Serial : 11 Engine : Dohc Engine Capacity : 2000 cc Transmission : Automatic Color : Black Fuel System: Octane Options: Excel...

দাম জানুন

Banani

Exclusive Cars
  • নতুন

Used Kia 2011 with automatic transmission is for sale in Dhaka. KIA runs on petrol. This car comes in Orange and has an engine size of 1500 cc All manufacturers’ parts and original body color....

BDT 2,550,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

Banani

M. S. M Car center
  • 26,000 কিলোমিটার

Manufacturer : Kia , Series : Sportage Model : 2012 Registration : 2012 Mileage : 26000 Serial : 13 Engine capacity :2000 cc. Transmission : Auto. Color : black Fuel System : Octane Opt...

দাম জানুন

Banani

Exclusive Cars
  • 1 কিলোমিটার

Used Kia 2011 with automatic transmission is for sale in Dhaka. KIA runs on petrol. This car comes in Grey and has an engine size of 1500 cc All manufacturers’ parts and original body color. F...

BDT 2,000,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

ঢাকা

Md. Sajjed Hassen
  • 137,000 কিলোমিটার

Fully fresh condition. No internal or external damage. Had no accident. All papers up-to-date.

BDT 1,510,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

Bangladesh

R P Car Centre
  • নতুন

Used KIA Sportage 2008 with automatic transmission is for sale in Dhaka. KIA Sportage 2008 runs on petrol and has a promo list price 1510000. This car comes in Black and has an engine size o...

BDT 2,350,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

Bangladesh

HB Car Selection
  • নতুন

Used KIA Sportage 2011 Reg 2011 with automatic transmission is for sale in Dhaka. KIA Sportage 2011 Reg 2011 runs on petrol and has a promo list price 2350000. This car comes in Silver / Grey ...

ফলাফল হালনাগাদ করুন
বাংলাদেশে কিয়া স্পোর্টেজ বিক্রয়

বাংলাদেশে কিয়া স্পোর্টেজ বিক্রয়

১৯৯৩ সালে স্পোর্টেজ নিয়ে আসে দক্ষিন কোরিয়ার গাড়ি নির্মান কোম্পানি কিয়া , আর এটা বাজারজাত হয় ১৯৯৫ সাল থেকে৷৷এটা একটি কম্প্যাক্ট ক্রসওভার এসইউভি  ওয়াগন , যেটা এখন পর্যন্ত ৩টি প্রজন্মে এসেছে৷ প্রথম প্রজন্ম ছিল ১৯৯৩ থেকে ২০০৪ পর্যন্ত, দ্বিতীয় প্রজন্ম ২০০৪ থেকে ২০১০ পর্যন্ত, আর বর্তমান তৃতীয় প্রজন্ম ২০১০ থেকে শুরু হয়ে এখন পর্যন্ত চলছে৷ সবচেয়ে সাশ্রয়ী ২২টি কম্প্যাক্ট এসইউভির মধ্যে কিয়া স্পোর্টেজ  ৯ম স্থান অর্জন করে নিয়েছে৷ যারা এই ধরনের গাড়ি পছন্দ করেন, তাদের জন্য স্পোর্টেজ চমৎকার কারণ টপ ব্র্যান্ডের এসইউভি গুলোর তুলনায় এটা অনেক বেশি সাশ্রয়ী৷

কিয়া স্পোর্টেজ এর ইতিহাস

প্রথম দিকে গাড়িটার ৫ দরজা ক্রসওভার আর ৩ দরজা কনভার্টিবল ডিসাইন ছিল৷ সেই সময়ে কিয়ার মাজদা এবং ফোর্ড এর সঙ্গে জোট থাকার কারণে এই গাড়িটা তখন মাজদা  বঙ্গ র বেস প্লাটফর্ম দিয়ে ডিসাইন করা হত৷ প্রথম দুইটি প্রজন্মের গঠন ছিল বেশ বাক্স-সরূপ , যেটার কারণে এটার মূল্য তুলনামূলকভাবে কম ছিল৷ পরের প্রজন্মে বডি স্টাইল আর অন্যান্য ফীচার্স অনেক উন্নীত হওযায় এটার পারফরমেন্স আরও ভালো হয়ে যায়৷

কিয়া স্পোর্টেজ রিভিউ

কিয়া স্পোর্টেজ ইঞ্জিন স্পেসিফিকেশন

বাংলাদেশে সবচেয়ে সহজে উপলব্ধ তৃতীয় প্রজন্মের (২০১১ থেকে এখন পর্যন্ত) কিয়া স্পোর্টেজ ৩টি ভ্যারিয়েন্টে  আসে, যার সবগুলো ৬ স্পিড  অটোমেটিক ট্রান্সমিশনে  চলে৷ এই ভ্যারিয়েন্টগুলো হতে পারে ৪×২ ড্রাইভট্রেন ২ লিটার ডিজেল ইঞ্জিন, ৪×২ বা ৪×৪ ড্রাইভট্রেইন সহ ২ লিটার গাসলীন ইঞ্জিন অথবা ডিলাক্স এডিশন, যেটাতে আছে ২.৪ লিটার গ্যাসোলিন ইঞ্জিন আর অল উইল ড্রাইভ৷

২.০ লিটার  গ্যাসোলিন  ইঞ্জিন  আপনাকে দেয় ১৯৭ নিউটন  মিটার  টর্ক  আর ১৬৩ হর্সপাওয়ার  আর ২.৪ লিটার  গ্যাসোলিন  ইঞ্জিন দেয় ২২৬ নিউটন  মিটার  টর্ক আর ১৭৪ হর্সপাওয়ার ৷  গড়ে, কিয়া স্পোর্টেজের গতি থেকে ১০০ কিলোমিটার / ঘন্টায়  যেতে পারে ১১ থেকে ১৩ সেকেন্ডের মধ্যে৷ এটার ফুয়েল  কনসাম্পশন  ১৩ কিলোমিটার / লিটার

কিয়া স্পোর্টেজের ফীচার্স

কিয়া  স্পোর্টেজ  এসইউভি  প্রেমিকদের জন্য সবচেয়ে বুদ্ধিমান সিদ্ধান্ত, কারণ এর আছে খুবই আকর্ষনীয় ডিসাইন, রং, এলয় চাকা, আর সাথে অনেক আনুষঙ্গিক উপকরণ. জানালায় আছে টিনটেড কাছ আর পাওয়ার জানালা৷ নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য আছে সিটবেল্ট, এয়ারব্যাগ, এন্টি-লক ব্রেকিং সিস্টেম (এবিএস ), ফগ লাইট, ক্রুজ কন্ট্রোল, সেন্ট্রাল লকিং রিমোট কন্ট্রোল৷

এটার ২০১৪ সালের মডেল আর হ্যুন্দাই  সোনাটা একই ইঞ্জিন ব্যবহার করে৷ কিয়া  স্পোর্টেজের  বর্তমান মডেল ২০০০ সিসি  ইঞ্জিন ব্যবহার করে, যার সাথে আছে ফ্রন্ট উইল ড্রাইভ আর অটোমেটিক সাসপেনশন৷

বাংলাদেশে কিয়া স্পোর্টেজের দাম

ব্যবহারকারী এবং বিভিন্ন গাড়ি ম্যাগাজিনের রিভিউ অনুযায়ী কিয়া  স্পোর্টেজ মূল্য এর প্রদত্ত সার্ভিস এর চেয়ে অনেক কম । বাংলাদেশে রি-কন্ডিশন্ড  কিয়া স্পোর্টেজের দাম ৪০ লাখ টাকা ব্যবহৃত কিয়া স্পোর্টেজের দাম আরো কম। কারমুদিতে কিছু ব্যবহৃত কিয়া স্পোর্টেজ পাওয়া যায়। বাংলাদেশে এই মডেলের নতুন  গাড়ি পাওয়া বেশ কঠিন বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে এর উচ্চমূল্যের কারনে। নিচে কিয়া স্পোর্টেজের দাম বিস্তারিত দেওয়া আছে।   

কিয়া  স্পোর্টেজ  ২০১৪ – ব্যবহৃত – ৪২ লাখ টাকা

কিয়া  স্পোর্টেজ  ২০১২ – ব্যবহৃত – ৩৮ লাখ থেকে ৪২ লাখ টাকা

কিয়া  স্পোর্টেজ  ২০১১ – ব্যবহৃত – ৩৪.৫ থেকে ৩৫ লাখ টাকা

কেন কিয়া স্পোর্টেজ কিনবেন?

যদিও কিয়া স্পোর্টেজ  তার আরামদায়ক অন্দর, সড়কে মসৃণ চালনা, গাড়ি চালানোর অভিজ্ঞতায় আভিজাত্য এনে দিয়ে আপনাকে খুশি করে তুলবে, স্পোর্টেজের  প্রতিদ্বন্দ্বীরাও বাজারে তাদের শ্রেষ্ঠ মডেল নিয়ে তৈরি। হুন্ডাই  টাকসন , ফোর্ড  ইকোস্পোর্ট , হোন্ডা  সিআর-ভি, টয়োটা  রাভ-ফোর, মিতসুবিশি  আউটল্যান্ডার  হচ্ছে বাজারের অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী। এরপরও কিয়া স্পোর্টেজ আপনার কেনা উচিত কারন এর  –

  • সাশ্রয়ী মূল্য
  • শক্তিশালি ইঞ্জিন
  • ইন্টুইটিভ নেভিগেশন ইকুইপমেন্ট
  • সাবলীল হ্যান্ডলিং
  • গাড়ি-ভিত্তিক হাল্কা এসইউভির সর্বোৎকৃষ্ট উদাহরণ