: প্রস্তাবিত

BDT 4,800,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

চট্টগ্রাম

Shahidul Karim
  • 7,000 কিলোমিটার

This is very much fresh car

BDT 2,500,000 সরকারি ফি এর মধ্যে অনরভুক্ত নয়

ঢাকা

Masudul Islam
  • 100,000 কিলোমিটার

Very good condition

ফলাফল হালনাগাদ করুন

বাংলাদেশে হ্যুন্দাই সান্টা ফে বিক্রয়

২০০০ সালে সাউথ কোরিয়ান অটোনির্মাতা হ্যুন্দাই এর দ্বারা গাড়ির বাজারে প্রবর্তনের পর, হ্যুন্দাই সান্টা ফে এখন এখন অনেক দূর পর্যন্ত চলে এসেছে। সান্টা ফে এর নামটি আসে নিউ মেক্সিকোর শহর সান্টা ফে থেকে, আর এটা ফোর্ড এস্কেপ আর পন্টিয়াক এজটেক এর সাথে প্রায় একই সময়ে বাজারজাত হয়। প্রথম প্রথম কিছু নেতিবাচক রিভিউ পাওয়া সত্তেও, পরে এটা হ্যুন্দাই এর সবচেয়ে জনপ্রিয় আর বেস্ট সেলিং মডেলগুলোর মধ্যে একটি হয়ে ওঠে, যার কারণে হ্যুন্দাই এর সব কাস্টমারদের চাহিদা পূরণ করতে হিমশিম খেতে হয়। সঠিক বলতে গেলে সান্টা ফে এর ২০১৫ সালের মডেল হ্যুন্দাই এর তৃতীয় বেস্টসেলিং মডেল আর সেপ্টেম্বর মাসে এর চাহিদা ৩৫% বৃদ্ধি পেয়ে হ্যুন্দাই এলান্ত্রা আর হ্যুন্দাই আজেরা এর সমমানে চলে আসে।

সান্টা ফে বর্তমানে এর তৃতীয় প্রজন্মে আছে, যেটা প্রথম বাজারজাত হয়েছিল ২০১২ সালে। এটার সবচেয়ে নতুন মডেল, যেটার ২০১৫ সালে প্রবর্তন হয়, খুবই জনপ্রিয় একটি মডেল। তার পরের ২০১৬ সালের মডেলটা ইতিমধ্যে সাউথ কোরিয়া তে একটি ফেসলিফ্ট সহ মুক্তি পেয়ে গেছে। ২০০৮ সালে এটা কন্সুমার রিপোর্ট ম্যাগাজিনে টপ ১০ গাড়ির তালিকায় নিজের জায়গা করে নিয়েছে, আর এটার অসাধারণ পারফরমেন্স, নির্ভরযোগ্য নিরাপত্তা ফীচার্স আর কর্মদক্ষতার জন্য এটা “টপ পিক” গাড়ির পুরস্কার জিতে নিয়েছে।

হ্যুন্দাই সান্টা ফে রিভিউ

হ্যুন্দাই সান্টা ফে স্পেসিফিকেশন আর পারফরমেন্স

স্ট্যান্ডার্ড ২৯০ এইচপি ভি৬ ইঞ্জিন আর ছয় স্পিড অটোমেটিক ট্রান্সমিশন সহ তৃতীয় প্রজন্মের ২০১২ সালের সান্টা ফে মডেল একটি ফ্রন্ট উইল ড্রাইভ গাড়ি। ঐচ্ছিকভাবে আপনি অল ইউল ড্রাইভ (এ ডাব্লিউ ডি) ভার্সন ও ক্রয় করতে পারেন। সান্টা ফে আপনি ৩ রকম ইঞ্জিন অপশনে পেতে পারেন: প্রথমটি হচ্ছে ২.৪ লিটার ৪ সিলিন্ডার ইঞ্জিন যা আপনাকে দেয় সর্বোচ্চ ১৯০ হর্সপাওয়ার ইঞ্জিন শক্তি ৬৩০০ আরপিএম এ। দ্বীতিয়টি হচ্ছে টার্বোচার্জড ২.০ লিটার ৪ সিলিন্ডার ইঞ্জিন যা আপনাকে দেয় গড় ২৬৪ হর্সপাওয়ার ৬০০০ আরপিএম এ। শেষ অপশনটি শুধু যদি আপনি ৭ সীটার ভ্যারিয়েন্ট কেনেন, তাহলেই উপলব্ধ। এটি হচ্ছে ৩.৩ লিটার ল্যামডা ২ ভি৬। সান্টা ফে এর টর্ক ২৪৫ নিউটন মিটার ৪২৫০ আরপিএম এ।

এটার সর্বোচ্চ গতি ১৯০ কিলোমিটার প্রতি লিটারের বেশি না হলেও এটা ০ থেকে ১০০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা বেগে পৌছাতে পারে মাত্র ৭ সেকন্ডে। এটার গড় মাইলেজ শহুরে অবস্থায় ১৯ কিলোমিটার/ লিটার আর মহাসড়কে ২৫ কিলোমিটার/ লিটার। এটার ফুয়েল ট্যাঙ্ক এর ধারণ ক্ষমতা ৬৬ লিটার।

হ্যুন্দাই সান্টা ফে বাহিরের ডিসাইন

বাহিরের ফীচার্স এর দিক থেকে সান্টা ফে খুবই সুদৃশ্য একটি গাড়ি। এটার মার্জিত স্ট্রীমলাইন করা বডি, যা এটাকে বায়ুরোধ অতিক্রম করে সাহায্য করে, আর এটার অসাধারণ ডিটেলস গাড়িটার শক্তিশালী আর স্পোর্টি ভাইবকে বজিয়ে রাখে। এই গাড়িটার আছে ফগ ল্যাম্প, এইচআইডি জিনন হেডলাইট, ফ্রন্ট বার আর রিয়ার স্পোর্টি স্পয়লার আর পানারমিক সান রুফ। চাকাগুলো ১৭-১৯ ইঞ্চি এলয় চাকা।

হ্যুন্দাই সান্টা ফে এর ভেতরের ডিসাইন

হ্যুন্দাই সান্টা ফে এর অন্দরটা খুবই সুন্দর আর আরামদায়ক। সাধারণত এটাতে ৫ জন বসতে পারে, যদি আপনি ৭ সীটার ভ্যারিয়েন্ট না কেনেন। এটা সফ্ট টাচ ম্যাটেরিয়ালস দিয়ে তৈরী আর আর সীটগুলোো লেদার দিয়ে মোড়ানো। চালকের সীটটা অটোমেটিক এডজাস্ট করা যায়, কিন্তু এই অপশনটা শুধু রেগুলার এসইউভির সাথেই আসে, আর মুল্যসান্টা ফে স্পোর্ট এ এই ফীচারটা ঐচ্ছিক। স্পোর্ট ২.০ ভ্যারিয়েন্ট এর মধ্যে আছে হীটেড সীট, ৮ ইঞ্চি টাচস্ক্রিন ন্যাভিগেশন সিস্টেম আর রিয়ার ভিউ ক্যামেরা।

বাংলাদেশে হ্যুন্দাই সান্টা ফে এর মূল্য

হ্যুন্দাই সান্টা ফে সুলভ মূল্যে উপলব্ধ না, কিন্তু যেহেতু এটা একটি লাগ্জারী এসইউভি আর যেহেতু এর ফীচার্সগুলো অদিতীয়, তাই এর মূল্যটা ন্যায্য। বাংলাদেশে এই গাড়ি বাজারজাত করে হ্যুন্দাই মটরস বাংলাদেশ লিমিটেড। নিচে কারমুডির তালিকার ওপর নির্ভর করে বাংলাদেশে সান্টা ফে এর মূল্য দেয়া রইলো। মূল্য গাড়ির নতুন/ রিকন্ডিশন্ড অবস্থা, ফীচার্স, ইত্যাদির ওপর নির্ভর করে বদলাতে পারে:

হ্যুন্দাই সান্টা ফে ২০১৫ মূল্য: নতুন/ রিকন্ডিশন্ড- ৬৯,৯০,০০০ টাকা

আপনি কারমুডির সাহায্যে আপনার শহরে ক্রয়ের জন্য উপলব্ধ হ্যুন্দাই সান্টা ফে খুঁজে নিতে পারেন:

কেন কিনবেন হ্যুন্দাই সান্টা ফে?

শুধু স্টেটাস এর জন্যই একটা সান্টা ফে কিনে ফেলা অস্বাভাবিক না, কিন্তু আপনি যদি ডিটেলস দেখতে চান, তাহলে সান্টা ফে চমৎকার একটি গাড়ি। বাজারে এর প্রতিযোগিতা করে হ্যুন্দাই তুক্সন, হোন্ডা সিআর-ভি, কিয়া সরেন্ত আর ফোর্ড এজ। হ্যুন্দাই সান্টা ফে কিনবেন কারণ:

  • চমৎকার অন্দর আর বাহিরের ডিসাইন
  • অনেক ইঞ্জিন অপ্শন
  • স্পোর্টি ভাব সহ পারিবারিক এসইউভি
  • চমৎকার সেফটি ফীচার্স