: প্রস্তাবিত

BDT 965,000 মূল্য পরিবর্তনশীল

ঢাকা

Bappe
  • 66,000 কিলোমিটার

Hello, Dear Car Lover, its totally fresh used car, with good condition Original Ford Engine (vvti) with very good condition, Never work on Engine or other major issued , Just Buy and Drive, No s...

BDT 877,000 ড্রাইভ আও্যে

ঢাকা

Habibur Rahman
  • 65,500 কিলোমিটার

Fresh Running Condition Papers are up-to date. Remote Key. All Function Auto. Model: 2010 Reg: 2011 Color: Silver CC: 1396 DM: 31 Serial Fuel: Octane Extra Tire: 01 New Break shoe & pad, Radiator...

BDT 900,000 ড্রাইভ আও্যে

ঢাকা

Rahman
  • 64,000 কিলোমিটার

Ford Fiesta 2010 Model and Registration 2011. Silver Color, All opinion auto. As like Reconditioned car. 5 tyres. Doors 5. Brand New from Ford AG Bangladesh on 2011 March. Papers updated March 20...

ফলাফল হালনাগাদ করুন
বাংলাদেশে ফোর্ড ফিয়েস্তা বিক্রয়

বাংলাদেশে ফোর্ড ফিয়েস্তা বিক্রয়

ফোর্ড ফিয়েস্তা একটি সুপারমিনি গাড়ি যেটার ১৯৭৬ সালে প্রবর্তন হয় আর এখন এটা সফলভাবে এটার ৭ম প্রজন্মে আছে। গ্লোবাল মার্কেটে এটা সেডান, হ্যাচবাক এমনকি কূপ ভার্সনের বডি মেকেও উপলব্ধ ছিল। এটা একটি ছোট পারিবারিক গাড়ির চেয়ে ছোট কিন্তু শহুরে গাড়ির চেয়ে বড়, যার কারণে এটা সুপারমিনি ক্যাটাগরিতে স্থান পায়। এর পরেও এটা ২-৩ সীটিং আয়োজনে ৫ জন বসার জায়গা দিতে পারে। সবচেয়ে নতুন প্রজন্ম উপলব্ধ ৩ দরজার ভ্যান, ৪ দরজার সেলুন আর একটা ৩ বা ৫ দরজার হ্যাচবাক বডি স্টাইলে১৯৭৬ সাল ধরে ফোর্ড ফিয়েস্টার ১৬ মিলিয়ন ইউনিটেরও বেশি গাড়ি বিক্রি হয়েছে আর এটা ফোর্ড ব্র্যান্ডের একটি ডিফাইনিং গাড়ি। এসকর্ট আর এফ-সিরিজের পর এটা ফোর্ড ব্র্যান্ডের বেস্টসেলিং একটি মডেল

ফোর্ড ফিয়েস্তা রিভিউ

ফোর্ড ফিয়েস্তা ইঞ্জিন স্পেসিফিকেশন আর পারফরমেন্স

ফোর্ড ফিয়েস্তার সপ্তম সংস্করণ (২০০৮ সাল থেকে এখন পর্যন্ত উৎপাদিত) বেশ কয়েকটি ইঞ্জিন ভেরিয়েশনে আসে এই উপমহাদেশের বাজারে: ১.০ লিটার তিন সিলিন্ডার ডিউরাটেক টি-ভিসিটি (ভ্যারিয়েবল ক্যামশ্যাফট টাইমিং) গ্যাসোলিন ইঞ্জিন, যেটা আপনাকে দেয় ৮০ হর্সপাওয়ার আর ১০৫ নিউটন মিটার টর্ক। এই ১.০ লিটার ইঞ্জিনই আবার অপশনাল ইকোবুস্ট প্রযুক্তির সাথে আসতে পারে, যেটা আপনাকে দেবে ১২৫ হর্সপাওয়ার এর উন্নত পাওয়ার আর ২০০ নিউটন মিটার টর্ক। একই ভার্সনের ১.৫ লিটার ইঞ্জিন দেয় ১১২ হর্সপাওয়ার আর ১৪০ নিউটন মিটার টর্ক। সব মডেলেই আছে ৫ স্পিড ম্যানুয়াল ট্রান্সমিশন আর ঐচ্ছিক ৬ স্পীড অটোমেটিক ট্রান্সমিশন। পারফরমেন্স এর ক্ষেত্রে এটা ১০ সেকেন্ডে ০ থেকে ১০০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা গতিতে পৌছাতে পারে। ফুয়েল এফিসিয়েন্সির ক্ষেত্রে ১.০ লিটার ইকোবুস্ট ভার্সন দক্ষিন আমেরিকার সবচেয়ে ফুয়েল এফিসিয়েন্ট নন-হাইব্রিড গাড়ি। উপমহাদেশে যেই ভার্সনটা জনপ্রিয়, ১.৫ লিটার ভার্সনটা, সেটার ফুয়েল কনসাম্পশন গড়ে ১৭-২০ কিলোমিটার/লিটার

ফোর্ড ফিয়েস্তা ডিসাইন

ফোর্ড ফিয়েস্তা গড়া হয়েছে ফোর্ড এর বি৩ সাবকম্প্যাক্ট অটোমোবাইল প্লাটফর্ম এর ওপর। এটার ইউনিবডি কনস্ট্রাকশন ফ্রন্ট সাস্পেন্শনে ম্যাকফার্সন স্ট্রাট আর পেছনের সাসপেনশন টুইস্ট বীমের সাথে অনায়াসে সংযুক্ত হয়। বাহিরের ডিসাইনের কারণে এই গাড়িটাকে প্রায়ই “কিউট” বলা হয়ে থাকে আর এটা অসাধারণ ডিটেইলিং এর সাথে নির্ভুল অনুপাতের কারণে

ফোর্ড ফিয়েস্তা ফীচার্স

ফোর্ড ফিয়েস্তা ছোট গাড়ি হলেও নিরাপত্তার দিক থেকে এটা অনেক বড়। এটা আপনাকে দেয় অজস্র নিরাপত্তা ফীচার্স, যেমন ইলেক্ট্রনিক স্টাবিলিটি কন্ট্রোল, ড্রাইভার নী এয়ারব্যাগ, ডুয়াল-স্টেজ  প্রথম সারির এয়ারব্যাগ, সাইড কার্টেন এয়ারব্যাগ, সাইড ইমপ্যাক্ট এয়ারব্যাগ, এলএটিসিএইচ (ল্যাচ)- (লোয়ার এন্কর্স এন্ড টেথার্স ফর চিলড্রেন), চার চাকার এন্টি-লক ব্রেকিং সিস্টেম, চাইল্ড সেফটি রিয়ার লক, উন্নত সাইড ইমপ্যাক্ট নিরাপত্তা সামর্থ্য, টায়ার প্রেসার মনিটরিং সিস্টেম, এন্টি-থেফট ইঞ্জিন ইম্মবিলাইজার ইত্যাদি।

বাংলাদেশে ফোর্ড ফিয়েস্তা মূল্য

ফোর্ড ফিয়েস্তা বাংলাদেশে ব্যবহৃত অবস্থায় সহজেই পাবেন. নিচে ফোর্ড ফিয়েস্তার প্রত্যাশিত মূল্য দেয়া রইলো, কারমুডির তালিকা অনুযায়ী:

ফোর্ড ফিয়েস্তা ২০১০ মূল্য: ব্যবহৃত- ১২,৬৫,০০০ টাকা

ফোর্ড ফিয়েস্তা ২০১১ মূল্য: ব্যবহৃত- ১৩,৫০,০০০ টাকা

কেন কিনবেন ফোর্ড ফিয়েস্তা?

স্টাইলিং, হ্যান্ডলিং, ইঞ্জিন পারফরমেন্স, ফুয়েল ইকোনমি এবং অন্যান্য সব জরুরি ক্ষেত্রেই ফোর্ড ফিয়েস্তা সহজেই নিজের প্রতিদ্বন্দ্বীদের ছাড়িয়ে যায়। এটা দাম অনুযায়ী অনেক ভালো একটি গাড়ি আর যারা রোজ ঢাকার মত যানযত ওয়ালা শহরে যাতায়াত করেন তাদের জন্য এটা অসাধারণ একটি গাড়ি। ফিয়েস্তা সেডান এবং হ্যাচবাক সেগমেন্টে বিভিন্ন গাড়ির সাথে প্রতিযোগিতা করে, যেমন হোন্ডা জ্যাজ, হোন্ডা ফিট, হোন্ডা সিটি, কিয়া রিও, টয়োটা প্রিয়াস, আর টয়োটা ভীয়স। যারা প্রথম বার গাড়ি কিনতে চাচ্ছেন তাদের জন্য অনেক অসাধারণ একটি গাড়ি এইটা, কারণ এটা আপনাকে দেবে:

  • ভালো ফুয়েল এফিসিয়েন্সি
  • সাশ্রয়ী মূল্য
  • সব জরুরি নিরাপত্তা ফীচার্সের উপস্থিতি
  • শুধু মাত্র ১৭.৩ ইঞ্চির শার্প টার্নিং রেডিয়াস